মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

জেলা উন্নয়ন ও সমন্বয় কমিটির সভা

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার

জেলা প্রশাসকের কার্যালয়

শরীয়তপুর।

(স্থানীয় সরকার শাখা)

 

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী’র  অগ্রাধিকার প্রকল্প বাসত্মবায়ন অগ্রগতি পর্যালোচনা সভার কার্যবিবরণীঃ

 

সভাপতিঃ                                    রাম চন্দ্র দাস, জেলা প্রশাসক, শরীয়তপুর।

স্থানঃ                              জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষ, শরীয়তপুর।       

তারিখঃ                           ১৬-০৪-২০১৪ খ্রিঃ, সময়ঃ সকাল ১০:৩০ টা।

সভায় উপস্থিত সদস্যগণের নামের তালিকাঃ

            ০১।  জনাব মোঃ আসিব আহসান, উপ-পরিচালক, স্থানীয় সরকার, শরীয়তপুর।

০২।  জনাব মোঃ জাকির হোসেন, নির্বাহী প্রকৌশলী, সড়ক ও জনপথ বিভাগ, শরীয়তপুর।                        

০৩।  জনাব মোঃ মেহেদী হাসান, নির্বাহী প্রকৌশলী এর পক্ষে, গণপূর্ত বিভাগ, শরীয়তপুর।

০৪।   জনাব বাবুল চন্দ্র মালো, সহকারী প্রকৌশলী (ভারপ্রাপ্ত), শিক্ষাপ্রকৌশল অধিদপ্তর, শরীয়তপুর।

 

 

         সভাপতি উপস্থিত সকলকে স্বাগত জানিয়ে সভার কাজ শুরম্ন করেন। অতঃপর সভাপতির অনুমতিক্রমে উপ-পরিচালক, স্থানীয় সরকার, শরীয়তপুর গত ২৩-০৩-২০১৪ খ্রিঃ তারিখে অনুষ্ঠিত সভার কার্যবিবরণী পাঠ করে শুনান এবং একই সাথে মাল্টিমিডিয়ায় প্রদর্শন করা হয়। কোন প্রকার সংশোধনী না থাকায় তা সর্বসম্মতিক্রমে দৃঢ়ীকরণ করা হয়। সভায় বিভাগ ভিত্তিক আলোচনামেত্ম নিমণরম্নপ সিদ্ধামত্ম গৃহীত হয়।

বিভাগ ভিত্তিক আলোচনাঃ

            ১। গণপূর্ত বিভাগঃ

            নির্বাহী প্রকৌশলী, গণপূর্ত বিভাগ সভায় জানান মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতিফলক নির্মাণের কাজ ৫৫% সমাপ্ত হয়েছে। বাকী কাজ সমাপ্ত করার  জন্য ২১ লক্ষ ২৬ হাজার টাকা প্রয়োজন। মূল কাজের অবশিষ্ট অংশ সম্পন্ন করার জন্য ২০১৪ সালের সিডিউল অনুযায়ী সংশোধিত প্রাক্কলন প্রস্ত্তত করে বরাদ্দপত্রসহ তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী, বরিশাল গণপূর্ত সার্কেল, বরিশাল বরাবর অনুমোদনের জন্য পুনরায় প্রেরণ করার প্রক্রিয়া চলমান রয়েছে।

 

সিদ্ধামত্ম - ০১ঃ  শহীদ মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতিফলকের অবশিষ্ট নির্মাণ কাজ সমাপ্ত করার লক্ষ্যেপ্রয়োজনীয় অর্থ বরাদ্দ চেয়ে উর্দ্ধতন       কর্তৃপক্ষ  বরাবর পত্র দেয়ার সিদ্ধামত্ম গৃহীত হয় ।

 

বাসত্মবায়নেঃ  নির্বাহী প্রকৌশলী, গণপূর্ত বিভাগ, শরীয়তপুর ।

 

মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর অগ্রাধিকার প্রকল্পের আওতায় জরম্নরী বাসত্মবায়নযোগ্য প্রকল্প প্রস্ত্তত করে বরাদ্দের নিমিত্ত সংশিস্নষ্ট বিভাগে প্রসত্মাব প্রেরণ করার জন্য অনুরোধ করা হয়। অসমাপ্ত প্রকল্পের কাজ দ্রম্নত সমাপ্ত করার জন্য সভাপতি প্রকল্প বাসত্মবায়নকারী দপ্তর প্রধানদের অনুরোধ করেন।

 

সভায় আর কোন আলোচনা না থাকায় সভাপতি উপস্থিত সকলকে ধন্যবাদ জানিয়ে সভার সমাপ্তি ঘোষণা করেন।      

 

 

    (রাম চন্দ্র দাস)

জেলা প্রশাসক

শরীয়তপুর।

 

স্মারক নং - ০৫.৩০.৮৬০০.০১০.০৭.০০২.১৪-            (৮)                                          তারিখঃ          মে ২০১৪ খ্রিঃ।

 

অনুলিপি সদয় অবগতি/অবগতি ও প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য প্রেরণ করা হলোঃ

 

০১।  মুখ্য সচিব, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়, তেজগাঁও, ঢাকা।

০২।  কমিশনার, ঢাকা বিভাগ, ঢাকা।

০৩।  অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক), শরীয়তপুর।

০৪।  নির্বাহী প্রকৌশলী, গণপূর্ত বিভাগ, শরীয়তপুর।

০৫।  নির্বাহী প্রকৌশলী, এলজিইডি, শরীয়তপুর।

০৬।  নির্বাহী প্রকৌশলী, সড়ক ও জনপথ বিভাগ, শরীয়তপুর।

০৭।  সহকারী কমিশনার , গোপনীয় শাখা  (জেলা প্রশাসক মহোদয়ের সদয় অবগতির জন্য)।

০৮।  সহকারী প্রকৌশলী, শিক্ষা প্রকৌশল বিভাগ, শরীয়তপুর।

 

 

                                                                                                                                       (মোঃ আসিব আহসান)

         উপ-পরিচালক

স্থানীয় সরকার, শরীয়তপুর।


গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার

 জেলা প্রশাসকের কার্যালয়

শরীয়তপুর।

(স্থানীয় সরকার শাখা)

 

 

শরীয়তপুর জেলা উন্নয়ন ও সমন্বয় কমিটির এপ্রিল/২০১৪ খ্রিঃ মাসের সভার কার্যবিবরণীঃ

 

সভাপতি              ঃ         রাম চন্দ্র দাস, জেলা প্রশাসক, শরীয়তপুর।

স্থান                    ঃ         জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষ, শরীয়তপুর।

তারিখ                 ঃ         ১৬-০৪-২০১৪ খ্রিঃ, বেলা ১১:০০ টা।

 

সভায় উপস্থিত ও অনুপস্থিত সদস্যগণের নামের তালিকা যথাক্রমে পরিশিষ্ট  ‘ক ’ ও ‘খ’ তে সংযোজিত ।

 

 

সভাপতি সভায় উপস্থিত সকলকে স্বাগত জানিয়ে সভার কার্যক্রম শুরম্ন করেন। অতঃপর সভাপতির অনুমতিক্রমে উপ-পরিচালক, স্থানীয় সরকার, শরীয়তপুর গত ২৩-০৩-২০১৪ খ্রিঃ তারিখে অনুষ্ঠিত সভার কার্যবিবরণী পাঠ করে শুনান এবং একই সাথে মাল্টিমিডিয়ায় প্রদর্শন করা হয়।  কার্যবিবরণীতে কোন প্রকার সংশোধনী না থাকায় উহা সর্বসম্মতিক্রমে দৃঢ়ীকরণ করা হয়।। অতঃপর বিভিন্ন বিষয় ও বিভাগ ভিত্তিক বিসত্মারিত আলোচনা এবং নিমেণাক্ত সিদ্ধামত্ম গৃহীত হয়।

 

­­­­০১। গণপূর্ত বিভাগt  

            নির্বাহী প্রকৌশলী, গণপূর্ত বিভাগ এর পক্ষেসভায় জানান যে, শরীয়তপুর কারিগরি  প্রশিক্ষণ কেন্দ্র নির্মাণ কাজের একাডেমিক ভবনের টেষ্ট পাইল কাস্টিং সম্পন্ন হয়েছে। এছাড়া ডরমিটরী ভবন, প্রিন্সিপাল কোয়ার্টার এর দরপত্র মূল্যায়ণ প্রক্রিয়াধীন। সীমানা প্রাচীর নির্মাণ কাজের কার্যাদেশ প্রদান করা হয়েছে ও ভূমি উন্নয়ন কাজের দরপত্র পুনরায় আহবান প্রক্রিয়াধীন। জাজিরা সাব রেজিস্ট্রার অফিসের ভূমি অধিগ্রহণের জন্য স্থান নির্বাচন করা হয়েছে। অনুমোদনের জন্য মন্ত্রণালয়ে প্রেরণ করা হয়েছে।  ইতোমধ্যে মহামান্য হাইকোট বিভাগে রীট মামলা দায়ের করা হয়েছে। উক্ত রীট মামলায় প্রতিদ্বন্ধিতা করতে হবে অথবা অন্য জাযাগায় ভূমি অধিগ্রহণের প্রসত্মাব উপস্থাপনের অভিমত ব্যক্ত করা হয়। জেলা সার্ভার স্টেশন নির্মাণ কাজ সমাপ্ত হয়েছে , হসত্মামত্মর প্রক্রিয়াধীন। মুক্তিযোদ্ধা কমপেস্নক্স্র এর মূল কাঠামো নির্মাণ সম্পন্ন হয়েছে। মূল ভবনের থাই এ্যালুমিনিয়াম জানালা স্থাপন ও রং এর কাজ এবং সীমানা প্রাচীর নির্মাণ কাজ চলছে। চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কোর্ট নির্মাণের লক্ষ্যেজেলা স্থান নির্বাচন কমিটির সভায় ১.৭৫ একর জমি অধিগ্রহণের সিদ্ধামত্ম গৃহীত হয়েছে। জেলা সার্কিট হাউস ভবনটি  তিন তলা করার কর্মপরিকল্পনা প্রনয়নের  জন্য এবং জেলা প্রশাসকের বাসভবনের মূল স্থাপত্য শৈলী অক্ষুন্ন রেখে স্থায়ীভাবে ভবনটি সংস্কার করার জন্য অনুরোধ করা হয়। চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ, গোসাইরহাট, ইদিলপুর ইউনিয়ন পরিষদের পাশে ০.৫০ শতাংশ জমিতে মুক্তিযোদ্ধা কমপেস্নক্স ভবন নির্মান করার জন্য অনুরোধ করেন।

সিদ্ধামত্মঃ                                                                                             ১।  শরীয়তপুর কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র নির্মাণ কাজের একাডেমিক ভবন, ডরমিটরী ভবন, প্রিন্সিপাল কোয়ার্টার, সীমানা প্রাচীর  ও ভূমি

                  উন্নয়ন কাজের প্রয়োজনীয় কার্যক্রম  দ্রম্নত সমাপ্ত করার জন্য অনুরোধ করা হয়।

            ২। জাজিরা সাব রেজিস্ট্রার অফিস নির্মাণের জন্য বর্তমান  নিরিখে প্রসত্মাবিত জায়গায় করা হলে মহামান্য হাইকোর্ট বিভাগে দায়েরকৃত

                রীট মামলা প্রতিদ্বন্ধিতা করতে হবে অথবা অন্য জায়গায় বিকল্প প্রসত্মাব দাখিলের বিষয়ে আগামী সভায় প্রতিবেদন উপস্থাপনের জন্য

                প্রত্যাশী সংস্থাকে অনুরোধ করা হয়।

          ৩। মুক্তিযোদ্ধা কমপেস্নক্স ভবনের নির্মাণ কাজ নির্ধারিত সময়ের মধ্যে সমাপ্ত করার জন্য অনুরোধ করা হয়।

            ৪। চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কোর্ট ভবন নির্মাণের  ভূমি অধিগ্রহণের অনুমোদনের কার্যক্রম সম্পন্ন করার জন্য অনুরোধ করা হয়।

            ৫। জেলা সার্কিট হাউস ভবনটি  তিন তলা করার কর্মপরিকল্পনা  প্রনয়ন করার প্রাক্কলন আগামী ৩০ এপ্রিল ২০১৪ এর মধ্যে প্রেরণ করার

                 জন্য অনুরোধ করা হয়।

            ৬। জেলা প্রশাসকের বাসভবনের মূল স্থাপত্য শৈলী অক্ষুন্ন রেখে স্থায়ীভাবে ভবনটি সংস্কার করার জন্য অনুরোধ করা হয়।

            ৭। জেলা পাসপোর্ট  অফিস  জরম্নরী ভিত্তিতে চালু করার জন্য পাসপোর্ট অফিসারকে অনুরোধ করা হয়।  

            ৮। উপজেলা নির্বাহী অফিসার, ভেদরগঞ্জ এর বাসভবন কনমেড ঘোষনা করার বিষয়ে জেলা কনডেম কমিটিকে সিদ্ধামত্ম নেয়ার জন্য

                 অনুরোধ করা হয়।

            ৯। জেলা সমাজ সেবা অফিসের সংস্কার  কাজ করার জন্য অনুরোধ করা হয়।

বাসত্মবায়নেঃ ১। নির্বাহী প্রকৌশলী, গণপূর্ত বিভাগ, শরীয়তপুর, ২। কমান্ডার, বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, শরীয়তপুর জেলা ইউনিট, শরীয়তপুর।  

              ৩। জেলা পাসপোর্ট অফিসার, শরীয়তপুর। ৪। জেলা রেজিস্ট্রার, শরীয়তপুর।

০২। এল জি ই ডিঃ

             নির্বাহী প্রকৌশলী, এলজিইডি সভায় অনুপস্থিত থাকায় তাঁর বিভাগের কার্যক্রম সম্পর্কে আলোচনা করা গেল না।

সিদ্ধামত্মঃ১। অসমাপ্ত উন্নয়নমূলক কাজ যথাসময়ে সমাপ্তকরণের লক্ষ্যেপ্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য অনুরোধ করা হয়।

           ২। গোসাইরহাট উপজেলাধীন সাইখ্যা ব্রীজের নির্মাণ কাজ শুরম্ন করার প্রয়োজনীয় কার্যক্রম গ্রহণের জন্য নির্বাহী প্রকৌশলীকে অনুরোধ

               করা হয়।

          ৩।  পিইডিপি-৩ এর আওতায় নির্মাণাধীন  বিদ্যালয়গুলোর নির্মাণ কাজ তদারকি করার জন্য উপজেলা নির্বাহী অফিসারগণকে অনুরোধ করা হয়।

            ৪। অতি ঝুঁকিপূর্ণ বিদ্যালয় ভবন গুলোর তালিকা প্রনয়ন করে গঠিত উপ-কমিটিকে নির্বাহী প্রকৌশলীর নিকট প্রেরণ করার জন্য অনুরোধ

               করা হয়।

           ৫। দক্ষিন চরকুমারিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠের মধ্য দিয়ে রাসত্মা নির্মান না করে বিদ্যালয়ের পিছন দিয়ে রাসত্মা  নির্মান করার

               বিষয়ে গঠিত উপ-কমিটিকে স্থানীয় ব্যবস্থায় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য অনুরোধ করা হয় এবং স্থানীয় ব্যবস্থাপনায় বিদ্যালয়

               মাঠের সীমানা প্রাচীর নির্মাণের জন্য অনুরোধ করা হয়।

বাসত্মবায়নে ঃ ১। নির্বাহী প্রকৌশলী, এলজিইডি, শরীয়তপুর। ২। উপজেলা নির্বাহী অফিসার (সকল), শরীয়তপুর।


০৩। সড়ক ও জনপথ বিভাগঃ  

            নির্বাহী প্রকৌশলী, সড়ক ও জনপথ বিভাগ জানান যে, মুন্সিরহাট সেতুসহ সড়ক নির্মাণ প্রকল্পটি  বতর্মানে বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচীতে পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের অনুমোদনের অপেক্ষায় রয়েছে।  এ ব্যাপারে পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ে যোগাযোগ অব্যাহত রয়েছে। নড়িয়া-পাঠানবাড়ি-নয়ন মাদবরকান্দি-ডগ্রি-শাওড়া সড়কের সড়ক বাঁধে মাটির কাজসহ পেভমেন্ট নির্মাণ কাজ চলছে।  বিভিন্ন কিঃমিঃ এ ৬ টি আরসিসি বক্স কালভার্ট নির্মাণ কাজ চলছে বিধায় বর্ণিত প্রকল্প যথাসময়ে বাসত্মবায়নের লক্ষ্যেঅত্র অফিস স্মারক নং ১৫৭৬ তারিখঃ ০৬/১১/২০১৩ খ্রিঃ মোতাবেক প্রয়োজনীয় অর্থ বরাদ্দের চাহিদা পত্র প্রেরণ করা হয়েছে। এছাড়া তিনি আরো বলেন, (ক) শরীয়তপুর-জাজিরা-কাওড়াকান্দি (কাঁঠালবাড়ি) সড়কটি জেলা সড়ক। বর্ণিত সড়কটি নির্মাণাধীন পদ্মা বহুমুখী সেতুর এ্যাপ্রোচ সড়কে সংযুক্ত রয়েছে। বর্ণিত সড়কটি পদ্মা বহুমুখী সেতুর এ্যাপ্রোচ সড়কে সংযুক্ত হওয়ায় যানবাহন চলাচল সংখ্যা বহুগুন বৃদ্ধি পাবে। ঢাকা হতে আগত পণ্যবাহী ট্রাক, বাস ও বিভিন্ন প্রকার যানবাহন এই সড়ক পথে শরীয়তপুর জেলা ও বিভিন্ন উপজেলায় যাতায়াত করবে। ইহা ছাড়াও দক্ষিণ-দক্ষিণ পশ্চিমাঞ্চলের বিভিন্ন জেলা সমূহ হতে এই সড়ক পথ দিয়ে দেশের পূর্ব অঞ্চলের বিভিন্ন জেলায় পণ্যবাহী ট্রাক ও অন্যান্য যানবাহন যাতায়াত সহজতর হবে। তাই বর্ণিত সড়কটিকে জাতীয় মহাসড়কে উন্নীত করা একামত্ম প্রয়োজন। ইহা ছাড়াও নাওডোবা (পদ্মা ব্রীজ এ্যাপ্রোচ) শরীয়তপুর-কালকিনি-কোটালীপাড়া সড়কটিকে জাতীয় মহাসড়কে উন্নীত করার লক্ষেডিপিপি প্রস্ত্তত পূর্বক প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। (খ) মোসত্মফাপুর-মাদারীপুর-শরীয়তপুর (মনোহর বাজার)-ইব্রাহিমপুর-হরিনা-চাঁদপুর (ভাটিয়ালপুর) সড়কটি একটি অত্যমত্ম গুরম্নত্বপূর্ণ আঞ্চলিক মহাসড়ক। এই সড়কটি বন্দর নগরী চট্টগ্রামের সাথে দেশের দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের খুলনা, মংলা ও বরিশাল বিভাগের বিভিন্ন  জেলায় স্বল্পতম দূরত্বে সহজতর যোগাযোগ ব্যবস্থা স্থাপিত হয়েছে। এই সড়ক পথে প্রতিদিন অসংখ্য ভারী ও হালকা যানবাহন চলাচল করছে। বন্দর নগরী চট্টগ্রাম হতে দেশের দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে যানবাহন সমূহ সড়ক পথে মহানগর ঢাকা হয়ে যাতায়াতের দূরম্নত্ব অনেক বেশী এবং অধিক সময় প্রয়োজন। ইহা ছাড়াও ঢাকা-চট্টগ্রাম রোডে যানজটের তীব্রতা অনেক বেশী হওয়ার ফলে বর্ণিত সড়কে যানবাহন চলাচল সংখ্যা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। তাই বর্তমানে সড়কটির গুরম্নত্ব অপরিসীম।  উক্ত সড়কটিকে আঞ্চলিক মহাসড়ক হতে জাতীয় মহাসড়কে উন্নীত করা প্রয়োজন। আংগারিয়া, টুমচর ও খোয়াজপুর সেতু তিনটি ৭ম বাংলাদেশ চীন মৈত্রী সেতু প্রকল্পের আওতায় রয়েছে। ইতোমধ্যে খোয়াজপুর সেতুটির বিকল্প সেতু (Diversion) নির্মাণের জন্য নতুন বেইলী সেতু স্থাপনের কাজ সম্পূর্ন হয়েছে বিকল্প পথে যানবাহন চলাচল করছে এবং টুমচর বেইলী ব্রীজের স্থলে বিকল্প সড়ক নির্মানের পর মূল ব্রীজের নির্মান কাজ চলছে ও আংগারিয়া বিকল্প সড়ক নির্মাণের কাজ চলছে। জেলা ভূমি বরাদ্দ কমিটির সভায় ৪-লেনে উন্নীতকরন প্রকল্প বাসত্মবায়নের নিমিত্ত ভূমি অধিগ্রহণের সিদ্ধামত্ম গৃহীত হয়েছে এবং জেলা প্রশাসসকের কার্যালয় হতে  ৩ ধারা নোটিশ প্রদান করা হয়েছে। তৎপ্রেক্ষিতে অচিরেই যৌথ তদমত্ম করার পর প্রাক্কলন প্রস্ত্তত কাজ সম্পন্ন করা হবে।

সিদ্ধামত্মঃ   ১। মুন্সীরহাট সেতুসহ সড়ক নির্মাণ প্রকল্পের বিষয়ে তৎপরতা বৃদ্ধিসহ সংশিস্নষ্ট কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ অব্যাহত রাখার জন্য নির্বাহী  

                 প্রকৌশলী, সওজ, সড়ক বিভাগ, শরীয়তপুর-কে অনুরোধ করা হয়।

২। অন্যান্য উন্নয়নমূলক প্রকল্পের কাজ এবং নড়িয়া-পাঠানবাড়ি-নয়ন মাদবরকান্দি-ডগ্রি-শাওড়া সড়কেরকাজ নির্ধারিত সময়ের মধ্যে সমাপ্ত করার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য নির্বাহী প্রকৌশলীকে অনুরোধ করা হয়।

           ৩। শরীয়তপুর-জাজিরা-কাওড়াকান্দি (কাঁঠালবাড়ি) সড়ক ও মোসত্মফাপুর-মাদারীপুর-শরীয়তপুর (মনোহর বাজার)-ইব্রাহিমপুর-হরিনা-চাঁদপুর (ভাটিয়ালপুর) সড়ক দুটিকে জাতীয় মহাসড়কে উন্নীত করার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য অনুরোধ করা হয়।

            ৪।  আংগারিয়া, টুমচর  এবং খোয়াজপুর সেতু তিনটি  দ্রম্নত নির্মানের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য নির্বাহী প্রকৌশলীকে অনুরোধ করা হয়।

৫। আংগারিয়া বাজার বাইপাস সড়কের মূল্য নির্ধারণ প্রতিবেদন দেয়ার জন্য নির্বাহী প্রকৌশলী, গণপূর্ত বিভাগ, শরীয়তপুরকে এবং সহকারী বন কর্মকর্তা, বন বিভাগ, ফরিদপুরকে  সড়ক বিভাগের তালিকা অনুযায়ী গাছের মূল্য  নির্ধারণের জন্য অনুরোধ করা হয়।

বাসত্মবায়নেঃ  ১। নির্বাহী প্রকৌশলী, সড়ক ও জনপথ বিভাগ, শরীয়তপুর। ২।  উপজেলা নির্বাহী  অফিসার (সকল), শরীয়তপুর।

০৪। জেলা পরিষদঃ

            প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা, জেলা পরিষদ, শরীয়তপুর সভায় অনুপস্থিত থাকায় তাঁর বিভাগের কার্যক্রম সম্পর্কে আলোচনা করা গেল না।

সিদ্ধামত্মঃ১।  উন্নয়নমূলক কাজ নির্ধারিত সময়ের মধ্যে সম্পন্ন করার জন্য প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা, জেলা পরিষদ, শরীয়তপুর-কে অনুরোধ করা হয়।  

          ২।  শরীয়তপুর সদর পুরাতন ডাকবাংলোর স্থানে বহুতলা মার্কেট নির্মাণকাজে খালের পানি প্রবাহ অব্যাহত রাখার বিষয়ে সতর্ক দৃষ্টি রাখা, লীজকৃত জমিতে যাতে স্থায়ী অবকাঠামো নির্মিত না হয় সেদিকে লক্ষ্যরাখাসহ লীজকৃত জমির সীমানা চিহ্নিত করার সময় সংশিস্নষ্ট উপজেলা ভূমি অফিসের সার্ভেয়ার রাখার ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা, জেলা পরিষদ, শরীয়তপুরকে অনুরোধ করা হয়। 

বাসত্মবায়নেঃ ১। প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা, জেলা পরিষদ, শরীয়তপুর।

০৫। শরীয়তপুর পৌরসভাঃ

            মেয়র, শরীয়তপুর পৌরসভা, সভায় জানান, শরীয়তপুর পৌরসভার উন্নয়নমূলক কার্যক্রম  এবং অন্যান্য কাজ স্বাভাবিকভাবে চলছে। কোন সমস্যা নেই। এছাড়াও মনোহর বাজার শ্মশান ঘাট এবং কোটাপাড়া শ্মশান ঘাট শীঘ্রই নির্মাণ করা হবে।

সিদ্ধামত্মঃ১।  শ্মশান ঘাট, পৌরসভা মিলনায়তন নির্মাণ, শরীয়তপুর  কোর্ট সংলগ্ন পুলিশ বক্স হতে পাকার মাথা হয়ে শরীয়তপুর পৌরসভার অমত্মর্ভূক্ত সকল  রাসত্মা  সংস্কারের জন্য এবং অন্যান্য উন্নয়নমূলক কার্যক্রম গ্রহণের জন্য মেয়র, শরীয়তপুর পৌরসভাকে অনুরোধ করা হয়।

বাসত্মবায়নেঃ ১।  মেয়র, শরীয়তপুর পৌরসভা, শরীয়তপুর।

০৬।স্বাস্থ্য বিভাগঃ

সিভিল সার্জন, শরীয়তপুর সভায় জানান, মার্চ/২০১৪ খ্রিঃ  মাসে সদর হাসপাতাল, শরীয়তপুরের বহিঃ বিভাগে চিকিৎসা প্রাপ্ত মোট রোগীর সংখ্যা ৯৪৯৮ জন। তন্মধ্যে পুরম্নষ রোগী ২২৪৮ জন, মহিলা রোগী ৪১১৭ জন এবং শিশু রোগী ৩১৩৩ জন। আমত্মঃবিভাগে ভর্তিকৃত মোট রোগীর সংখ্যা ১২৭৪ জন। তন্মধ্যে পুরম্নষ রোগী ৪৭০ জন, মহিলা রোগী ৮০৪ জন, সিজারিয়ান রোগীর সংখ্যা ৭৫ জন এবং স্বাভাবিক প্রসব হয়েছে ৪৬ জন, বেড অব অকুপেন্সি রেট-১১১%। রোগীর গড়  অবস্থান ২.৭০ দিন। এছাড়াও শরীয়তপুর জেলার ০৫ টি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপেস্নক্স ও ১৮ টি উপ-স্বাস্থ্য কেন্দ্রে মার্চ/২০১৪ খ্রিঃ মাসে বহিঃ বিভাগের চিকিৎসা প্রাপ্ত  মোট রোগীর সংখ্যা ৩০২৬৩ জন। তন্মধ্যে পুরম্নষ রোগী ৮২৫৪ জন, মহিলা রোগী  ১৩৮৪৮ জন এবং শিশু রোগী ৮১৬১ জন। আমত্মঃবিভাগে ভর্তিকৃত মোট রোগীর সংখ্যা ১৫০৪ জন। তন্মধ্যে পুরম্নষ রোগী ৬৬৫ জন, মহিলা রোগী ৮৩৯ জন। বেড অব অকুপেন্সি রেট ৮৭%। শরীয়তপুর জেলার সকল উপজেলায় মোট ৮৯ টি ক্লিনিকে পুরম্নষ ২২৯০৮ জন এবং মহিলা ৪০২২৬ জনসহ সর্বমোট ৬৩১৩৪ জনকে স্বাস্থ্য সেবা প্রদান করা হয়েছে। চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ, ডামুড্যা জানান, ডামুড্যা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপেস্নক্সে ০৬ জন নার্সের মধ্যে একজন নার্স কর্মরত আছেন। প্রয়োজনীয় সংখ্যক নার্স পদায়নের  ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য  সিভিল সার্জনকে অনুরোধ করা হয়। চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ, গোসাইরহাট জানান, কোদালপুর মৌজার ৩.০০ একর জমি ২০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতারে জন্য অধিগ্রহণ করা হয়েছে। এখন ১.০০ একর জমিতে ১০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতাল করা হবে । অবশিষ্ট ২.০০ একর জমিতে নার্সিং হোম করার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সিভিল সার্জনকে অনুরোধ করেন।

সিদ্ধামত্মঃ            ১। বিভাগীয় কার্যক্রম যথাযথভাবে সম্পাদনের জন্য অনুরোধ করা হয়।

            ২। গোসাইরহাট উপজেলার কোদালপুর ইউনিয়নে ২.০০ একর জমিতে নার্সিং হোম করার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য সিভিল সার্জনকে অনুরোধ করা হয়।

বাসত্মবায়নে ঃ ১। সিভিল সার্জন, শরীয়তপুর। ২। সহকারী প্রকৌশলী, স্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর, শরীয়তপুর।

০৭। পরিবার পরিকল্পনা বিভাগঃ

            উপ-পরিচালক, পরিবার পরিকল্পনা, শরীয়তপুর এর পক্ষেসভায় জানান, মার্চ/২০১৪ খ্রিঃ মাসে শরীয়তপুর জেলায় ১২ টি স্থায়ী পদ্ধতির বিশেষ সেবাদান এবং সেবা সপ্তাহের কার্যক্রম পরিচালনা করে ২১ টি এন,এস,ভি ৫৩ টি টিউবেকটমিসহ মোট ৭৪ টি স্থায়ী পদ্ধতির সেবা দেয়া হয়েছে। এছাড়াও ১৩৬ জনকে ইমপস্ন্যান্ট, ২৪৯ জনকে আইইউডি এবং ৮৫৭৯ ডোজ ইনজেকশন সেবা দেয়া হয়েছে। খাবারবড়ি ও কনডম বিতরণ সমেত্মাষজনক। রেজিস্ট্রেশনকৃত ২১৬৭৮৬ জন সক্ষম দম্পতির মধ্যে ১৬৮৬৭৯ জন কোন না কোন পদ্ধতি ব্যবহার করছেন (সিএআর ৭৭.৮১%)। পরিবার কল্যাণ সহকারীগণ কমিউনিটি ক্লিনিক, বাড়ি পরিদর্শনসহ ইপিআই কাজ করছেন। এফডবিস্নউভিগণ স্যাটেলাইট ক্লিনিক পরিচালনাসহ গর্ভবতী মায়েদের প্রসবপূর্ব ৩৫৯৮ জন, প্রসব ২৫৪ জন ও  প্রসব পরবর্তী ১০৪০ জনকে সেবাসহ (০-৫) বছরে ২৬৬৫৬ জন শিশুর স্বাস্থ্য সেবা দিয়েছেন। এসএসিএমও এবং পরিবার কল্যাণ পরিদর্শিকাগণ ২৮৮৩৫ জন সাধারণ রোগীর সেবা দিয়েছেন। জেলা প্রশাসক, শরীয়তপুর মাসিক লক্ষ্যমাত্রা জাতীয় লক্ষ্যমাত্রার সাথে মিল রেখে শরীয়তপুর জেলার লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের উদ্দেশ্যে সংশিস্নষ্ট সকলকে কাজ করার জন্য অনুরোধ করেন। জেলা প্রশাসক, শরীয়তপুর কমিউনিটি ক্লিনিকগুলো পরিদর্শন করে পরিদর্শন প্রতিবেদন জেলা প্রশাসক এবং সিভিল সার্জন বরাবর প্রেরণ করার জন্য অনুরোধ করেন।

সিদ্ধামত্মঃ১।  কমিউনিটি ক্লিনিকে নিয়মিত উপস্থিত থেকে স্থায়ী পদ্ধতির ক্যাম্প ও স্থায়ী পদ্ধতি গ্রহণ বৃদ্ধিসহ অন্যান্য দাপ্তরিক কাজ যথাযথভাবে

                সম্পন্ন করার জন্য অনুরোধ করা হয়।

            ২। জন্ম নিয়ন্ত্রনের মাসিক লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের লক্ষ্যেকাজ করার জন্য  এবং  কমিউনিটি ক্লিনিকসমূহ পরিদর্শন করে পরিদর্শন

                প্রতিবেদনের অনুলিপি জেলা প্রশাসক এবং সিভিল সার্জন ববাবর প্রদানের জন্য অনুরোধ করা হয়।

বাসত্মবায়নেঃ  ১। উপ-পরিচালক, পরিবার পরিকল্পনা বিভাগ, শরীয়তপুর।

০৮। কৃষি বিভাগঃ

            উপ-পরিচালক, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর, শরীয়তপুর এর পক্ষেসভায় জানান যে, চাষী পর্যায়ে উন্নতমানের ডাল, তেল ও পেয়াজ বীজ উৎপাদন কর্মসূচীর কার্যক্রম চলমান। এসসিডিপি, দারিদ্র্য দূরীকরণ ও খাদ্য নিরাপত্তার জন্য সমন্বিত কৃষি উন্নয়ন প্রকল্পের কার্যক্রম চলমান। অত্র  জেলায় রাসায়নিক সার ও ডিজেলের মজুদ সমেত্মাষজনক। সরকার নির্ধারিত মূল্যে রাসায়নিক সার বিক্রয় করা হচ্ছে। অত্র জেলায় সারের কোথাও কোন সংকট নেই। ভর্তুকি সার (নন ইউরিয়া) যথাসময়ে উত্তোলন, কৃষকদের মাঝে বিতরণ ও ব্যবহার বৃদ্ধির প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।   সকল সরকারী অফিসের খালি জায়গা ব্যবহার করে ফসল ও শাকসবজি আবাদের অগ্রগতির পরিমান ০.৫০০ হেক্টর। উদ্ধুদ্ধকরনের মাধ্যমে মিশ্র ফল বাগান স্থাপন ও আউশ ফসলের আবাদ বৃদ্ধির লক্ষ্যেবিশেষ কর্মসূচী বাসত্মবায়নের কার্যক্রম স্বাভাবিকভাবে চলছে। 

সিদ্ধামত্মঃ১। দাপ্তরিক কার্যক্রম যথাযথভাবে সম্পন্ন করার জন্য  উপ-পরিচালক, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর, শরীয়তপুরকে অনুরোধ করা হয়।

২। সকল সরকারী অফিসের খালি জায়গা ব্যবহার করে ফসল ও শাক সবজি উৎপাদনের অগ্রগতি জানানোর জন্য অনুরোধ করা হয়।

৩। কৃষকদের মাঝে ভর্তুকী সার যথাসময়ে বিতরণের ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য অনুরোধ কর হয় ।

বাসত্মবায়নেঃ ১। উপ-পরিচালক, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর, শরীয়তপুর। ২। উপজেলা নির্বাহী অফিসার (সকল), শরীয়তপুর।

০৯। বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন কর্পোরেশন (বি এ ডি সি)ঃ

সহকারী প্রকৌশলী (ক্ষুদ্রসেচ), বিএডিসি সভায়  জানান, শরীয়তপুর জেলায় ২০১৩-২০১৪ সনে শরীয়তপুর সদর উপজেলার আংগারিয়া  ইউনিয়নের  পশ্চিম পরাসর্দি খাল পূনঃ খননের কাজ শেষ হয়েছে। জাজিরা উপজেলায় বড় কান্দি ইউনিয়নের পশ্চিম ধুবলদিয়া কাটা খাল ও সামসুদ্দিন হাওলদার কান্দি খাল পুনঃখনন কাজ চলমান আছে। গোসাইরহাট উপজেলার নলমুড়ি ইউনিয়নের চর মনপুরা খুনেরচর খাল ও ডামুড্যা উপজেলার সিধলকুড়া ইউনিয়নের বারঘড়িয়া খাল পুণঃখনন লক্ষ্যমাত্রা গ্রহণ করা হয়েছে। এ ব্যাপারে বিভাগীয় কার্যক্রম অব্যাহত আছে। শরীয়তপুর সদর উপজেলার আংগারিয়া ইউনিয়নের দরিচর মৌজায় গনি মাতুববরের খালে একটি বক্স কালভার্ট নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হয়েছে ও রম্নদ্রকর ইউনিয়নের চরসুন্দি খালের উপর সস্নুইচ  গেট নির্মাণ কাজ প্রায় ৯০% শেষ হয়েছে। শরীয়তপুর পলস্নী বিদ্যুৎ সমিতির মাধ্যমে ১৮ টি সেচ স্কীমে বিদ্যুৎ সংযোগ প্রদানের জন্য ডিমান্ড নোটের টাকা পরিশোধ করা হয়েছে। ০৬ টি স্কীমে সেচ সংযোগ পাওয়া গিয়েছে। অবশিষ্ট স্কীমে সংযোগ পাওয়া যায়নি বিধায় সেচ কাজে বিঘ্ন সৃষ্টি হবে। খাল সমূহে পানি প্রবাহ নিশ্চিত করার জন্য পানি উন্নয়ন বোর্ড ও কৃষি বিভাগকে সমন্বয় করে উদ্যোগ গ্রহণ করার জন্য অনুরোধ করা হয়।

সিদ্ধামত্মঃ  ১। উন্নয়নমূলক কাজ এবং দাপ্তরিক কাজ যথাযথভাবে সম্পন্ন করার জন্য অনুরোধ করা হয়।

বাসত্মবায়নেঃ ১। সহকারী প্রকৌশলী (ক্ষুদ্রসেচ/ডালিসেপ্র), বিএডিসি, শরীয়তপুর জোন, শরীয়তপুর।

­১০। খাদ্য বিভাগঃ

জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক, শরীয়তপুর জানান যে, চাল ও গমের মওজুদ সমেত্মাষজনক। ফেয়ার প্রাইস ও ৪র্থ শ্রেণীর সরকারী কর্মচারীদের ডিলার ০৪ (চার) জন কর্মরত। আঞ্চলিক খাদ্য নিয়ন্ত্রক, ঢাকা মহোদয়ের ১৯/০৩/২০১৪ খ্রিঃ তারিখের ৬১১ নং স্মারকের নির্দেশ মোতাবেক ৪র্থ শ্রেণী সরকারী ফেয়ার প্রাইজ ২৩/০৩/২০১৪ খ্রিঃ তারিখ হতে শুরুহযেছে। সপ্তাহে ০৩ (তিন) দিন যথাক্রমে শুক্রবার, শনিবার ও মঙ্গলবার সকাল ৯.০০ টা হতে বিকাল ৫.০০ টা পর্যমত্ম বিক্রয় কার্যক্রম চলমান। প্রতিজন কার্ডপ্রতি মাসিক ১৫ কেজি চাল ও ০৫ কেজি আটা উত্তোলন করতে পারবেন। ওএমএস কার্যক্রমে চাল/আটা বিক্রি চলমান আছে।  ০১/১২/২০১১ খ্রিঃ তারিখ থেকে উপজেলা পর্যায়ে ওএমএস কার্যক্রম এবং সুলভ মুল্য কার্যক্রমে (ইউনিয়ন) চাল বিক্রয় সাময়িক ভাবে বন্ধ ছিল এবং পুনরায় ০৮/০৪/২০১৪ খ্রিঃ তারিখ হতে ওএমএস কার্যক্রম শুরুহয়েছে, বর্তমানে সদর/জাজিরা উপজেলায় এ কার্যক্রম চলমান আছে অভ্যমত্মরীণ গম সংগ্রহ ২০১৩-২০১৪ এর আওতায় ১৫০০০০ মে.টন লক্ষ্যমাত্রার বিপারীতে শরীয়তপুর জেলার ০৬ টি উপজেলায় ১১৯০ মে.টন বরাদ্দ পাওয়া গিয়েছে। জেলা প্রশাসক, শরীয়তপুর উপজেলা চেয়ারম্যান এবং উপজেলা নির্বাহী অফিসারগণকে সমন্বিতভাবে  খাদ্য বিভাগের খাদ্য যথাযথ ভাবে বিক্রয় হয় কিনা তার মনিটর করার জন্য অনুরোধ করা হয়।

সিদ্ধামত্মঃ            ১। ৪র্থ শ্রেণীর সরকারী কর্মচারীদের জন্য ফেয়ার প্রাইস, ওএমএস এবং বিভাগীয় কার্যক্রম দায়িত্বশীলতার সাথে সম্পাদনের জন্য অনুরোধ করা হয়।

২। উপজেলা চেয়ারম্যান এবং উপজেলা নির্বাহী অফিসারগণ সমন্বিতভাবে খাদ্য বিভাগের খাদ্য যথাযথ ভাবে বিক্রয় হয় কিনা তার মনিটর করার জন্য

     অনুরোধ করা হয়।

বাসত্মবায়নেঃ ১। জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক, শরীয়তপুর ও সংশিস্নষ্ট কর্মকর্তা।

১১। মৎস্য বিভাগঃ

জেলা মৎস্য কর্মকর্তা, শরীয়তপুর সভায় জানান যে, জাটকা আহরণ থেকে বিরত মৎস্যজীবীদের আপদকারীন খাদ্য সহায়তা প্রদান করার লক্ষ্যেশরীয়তপুর জেলার অনকূলে মার্চ/২০১৪ হতে জুন/২০১৪ খ্রিঃ পর্যমত্ম ০৪ (চার) মাস পরিবার প্রতি মাসে ৪০ (চলিস্নশ) কেজি হারে বিনামূল্যে বিতরণের জন্য বরাদ্দকৃত মোট খাদ্যশস্যের পরিমাণ ১৯৫১.০৪০ মে.টন চাউল। জাটকা সংরক্ষনের আওতায় এলাকার বিভিন্ন হাট-বাজার ও আড়ৎ পরিদর্শন করা হচ্ছে। মোবাইল কোর্ট-০২, অভিযান-৬২, মাছঘাট পরিদর্শন-৭৮, আড়ৎ পরিদর্শন-৪১৪, বাজার পরিদর্শন-৩৯৮, আটককৃত জাটকা-৩৮৯৭ কেজি, আটককৃত জাল-১৪৫০০ মিটার, জেল-১৯ জন।  মাছ ফরমালিন মুক্ত করন, সকল ভেজাল খাদ্য দ্রব্য নিরাপদ করনের লক্ষ্যে উপজেলা নির্বাহী অফিসার, থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এবং জেলা মৎস্য অফিসার সমন্বয়ে মৎস্য বাজারে গিয়ে তলস্নাসি করার জন্য অনুরোধ করা হয়।

সিদ্ধামত্মঃ ১। বিভাগীয় কার্যক্রম এবং জাটকা আহরণকারীদের বিরম্নদ্ধে মোবাইল কোর্ট পরিচালনার প্রয়োজনীয় উদ্যোগ গ্রহণ করার জন্য অনুরোধ করা হয়।

             ২। উপজেলা নির্বাহী অফিসার, ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এবং জেলা মৎস্য অফিসার সমন্বয়ে মৎস্য বাজারে গিয়ে তলস্নাসি করার জন্য অনুরোধ করা হয়।         

বাসত্মবায়নেঃ জেলা মৎস্য কর্মকর্তা , শরীয়তপুর ।


১২। প্রাণি সম্পদ বিভাগঃ

            জেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা, শরীয়তপুর এর পক্ষেজানান যে, কৃত্রিম প্রজণন কার্যক্রম সফলভাবে সমাপ্ত করা হয়। মার্চ/২০১৪ খ্রিঃ মাসে ২৬২০ টি কৃত্রিম প্রজণন প্রদান করা হয়েছে। উপকেন্দ্র-৬ টি, পয়েন্ট-১১ টি, ৩,৮৩,৩৯৩/- টাকা রাজস্ব আদায়, গবাদি পশু ৪২৬৪ মাত্রা ও হাঁস-মুরগি ১,৪৮,৮০০ মাত্রা টিকা প্রদান করা হয়েছে, গবাদি পশু ২১৬১ টি ও হাঁস-মুরগি ২৪,৫৫০ টি চিকিৎসা সেবা প্রদান করা হয়েছে। ৮২০ জনকে প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়েছে এবং বেসরকারী পর্যায়ে গবাদি পশু ০৮ টি, হাঁস-মুরগি ০৪ টি খামার স্থাপন করা হয়েছে। জেলা প্রশাসক, শরীয়তপুর বিভিন্ন প্রাণি, মৎস্য ও পোল্ট্রি খাবার ক্রমিয়ামযুক্ত বা মুক্ত কিনা তা পরীক্ষাকরে দেখার জন্য অনুরোধ করেন।

সিদ্ধামত্ম ঃ         ১। বিভাগীয় কার্যক্রম যথাযথভাবে সম্পাদনের জন্য অনুরোধ করা হয়।

২। বিভিন্ন প্রাণি, মৎস্য ও পোল্ট্রি খাবার ক্রমিয়াম যুক্ত বা মুক্ত কিনা তা পরীক্ষাকরে দেখার জন্য জেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তাকে অনুরোধ করা হয়।

বাসত্মবায়নেঃ ১। জেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা, শরীয়তপুর।

১৩।জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরঃ

নির্বাহী প্রকৌশলী, জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর, শরীয়তপুর এর পক্ষে সভায় জানান যে, ২০১৩-২০১৪ অর্থ বছরে বিশেষ গ্রামীণ পানি সরবরাহ প্রকল্পের আওতায় ক্যারিডওভার ৬৫ গভীর নলকূপ খননের কাজ সম্পন্ন হয়েছে। উক্ত প্রকল্পের আওতায় চলতি অর্থ বছরে ৭০ টি গভীর নলকূপ বরাদ্দ পাওয়া গিয়েছে। যার দরপত্র আহবান করা হয়েছে। আইডিবি সাহায্যপুষ্ট প্রকল্পের আওতায় ক্যারিডওভার ১৩০ টি উঁচু পাটাতনসহ গভীর নলকূপ খননের মধ্যে ১৩০ টিই সম্পন্ন হয়েছে ও ক্যারিডওভার ১৬৭ টি স্বল্প মূল্যের ল্যাট্রিন নির্মাণ কাজের মধ্যে ১৬৭ টি সম্পন্ন হয়েছে। পিইডিপি-৩ প্রকল্পের ১২৬ টি নলকূপের মধ্যে ১২৬ টি নলকূপই স্থাপন কাজ সম্পন্ন হয়েছে এবং WASH Block স্থাপন কাজ জুলাই/২০১৩ হতে ৭৮ টি এবং প্রকল্প শুরম্ন থেকে ১৩০ টি স্থাপন করা হয়েছে। ২০১৩-২০১৪ অর্থ বছরে অন্যান্য প্রকল্পের এডিপি এখনো পাওয়া যায়নি। কাইজেন থিম এর আলোকে অত্র জেলাধীন ডামুড্যা, গোসাইরহাট, নড়িয়া, ভেদরগঞ্জ ও জাজিরা উপজেলায় ০১ টি করে গ্রামে কর্মসূচী প্রনয়ন করা হয়েছে। উক্ত কর্মসূচীর আওতায় নির্দিষ্ট গ্রামের সকল নলকূপের পানির আর্সেনিক পরীক্ষা শেষে সবুজ/লাল রং দ্বারা চিহ্নিত করা হচ্ছে। পাশাপাশি জনসাধারনের স্বাস্থ্যভ্যাস উন্নত করার জন্য প্রচারনা ও উদ্বুদ্ধকরণ কাজ পরিচালনা করা হচ্ছে। দাপ্তরিক অন্যান্য কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে চলছে। স্যানিটেশন কভারেজ ১০০% করার জন্য স্ব স্ব উপজেলা নির্বাহী অফিসারদের সমন্বয়ে  গৃহীত কর্মপরিকল্পনা  অনুযায়ী  কাজ  সম্পন্ন করার জন্য অনুরোধ   করা হয়।

সিদ্ধামত্মঃ            ১।  উন্নয়নমূলক কাজ এবং দাপ্তরিক কার্যক্রম দায়িত্বশীলতার সাথে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে সম্পাদন/বাসত্মবায়ন করার জন্য অনুরোধ করা হয়।

                ২। স্যানিটেশন কভারেজ ১০০% করার জন্য স্ব স্ব উপজেলা নির্বাহী অফিসারদের সমন্বয়ে কর্ম পরিকল্পনা অনুযায়ী সম্পন্ন করার জন্য অনুরোধ করা হয়।

৩। কাইজেন কনভেনশনের কাজ যথাযথ ও সুষ্টুভাবে সম্পন্ন করার জন্য নির্বাহী প্রকৌশলীকে অনুরোধ করা হয়।

৪। প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ছোট খাট অকেজো নলকূপগুলো সংবাদ প্রাপ্তির ৭২ ঘন্টার মধ্যে সংস্কার করার জন্য নির্বাহী প্রকৌশলীকে অনুরোধ করা হয়।

বাসত্মবায়নেঃ ১। নির্বাহী প্রকৌশলী, জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর, শরীয়তপুর   ২। উপজেলা নির্বাহী অফিসার (সকল), শরীয়তপুর ।

১৪। পানি উন্নয়ন বোর্ডঃ

            নির্বাহী প্রকৌশলী, পানি উন্নয়ন বোর্ড, শরীয়তপুর  সভায় অনুপস্থিত থাকায় তাঁর বিভাগের কার্যক্রম সম্পর্কে আলোচনা করা গেল না।

সিদ্ধামত্মঃ                                                                                             ১। সুরেশ্বর বন্যা নিয়ন্ত্রণ ও সেচ প্রকল্প বাসত্মবায়নের নিমিত্ত সংশিস্নষ্ট মন্ত্রণালয়ের সাথে যোগাযোগ রাখতে নির্বাহী প্রকৌশলীকে অনুরোধ করা হয়।

            ২। কীর্তিনাশা নদীর পশ্চিম (ডানতীর) তীর শরীয়তপুর সদর উপজেলার ডোমসার ইউনিয়নের মুন্সির হাট হতে তেঁতুলিয়া মুক্তিযোদ্ধা সুলতান খাঁর বাড়ি

                 পর্যমত্ম প্রায় ৩ (তিন) কিলোমিটার নদীতীর সংরক্ষণ বাঁধ নির্মাণের প্রয়োজনীয় কার্যক্রম  গ্রহণের  জন্য নির্বাহী প্রকৌশলীকে অনুরোধ করা হয়।

            ৩। উন্নয়নমূলক এবং দাপ্তরিক কার্যক্রম যথাযথভাবে সম্পন্ন করার জন্য অনুরোধ করা হয়।

            ৪। শরীয়তপুর জেলাকে পদ্মা নদীর ভাংগন রক্ষাকল্পে সরকারের নিকটতম ঢাকা দপ্তরের অধীন ন্যসত্ম করার প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ

                করার জন্য অনুরোধ করা হয় ।

বাসত্মবায়নেঃ ১। নির্বাহী প্রকৌশলী, পানি উন্নয়ন বোর্ড, শরীয়তপুর।

১৫। শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তরঃ    

            সহকারী প্রকৌশলী, শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর জানান যে, ০৮ টি প্রকল্পের আওতাধীন ৬০ টি বিদ্যালয়ের নির্মাণ কাজের মধ্যে ২৬ টির কাজ সমাপ্ত হয়েছে। অবশিষ্ট ৩৪ টির কাজ চলমান রয়েছে। নির্ধারিত সময়ের মধ্যে নির্মাণ কাজ শেষ হবে। কাজের অগ্রগতি ৭৮.০০%। নির্ধারিত সময়ের মধ্যে কাজ সমাপ্ত করার জন্য অনুরোধ করা হয় ।

সিদ্ধামত্ম ঃ১। ০৮ টি প্রকল্পের অধীন অবশিষ্ট সকল বিদ্যমান নির্মাণ কাজ সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে সম্পন্ন করার জন্য অনুরোধ করা হয়।

বাসত্মবায়নেঃ ১। সহকারী প্রকৌশলী, শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর, শরীয়তপুর।

১৬। শিক্ষা বিভাগঃ

জেলা শিক্ষা অফিসার, শরীয়তপুর সভায় অনুপস্থিত থাকায় তাঁর বিভাগের কার্যক্রম সম্পর্কে আলোচনা করা গেল না।

সিদ্ধামত্মঃ১। বিভাগীয় কার্যক্রম সঠিক ও সুষ্ঠুভাবে করার জন্য এবং শিক্ষার মান উন্নয়নের লক্ষ্যে প্রয়োজনীয় কার্যক্রম গ্রহণের জন্য অনুরোধ করা হয়।

বাসত্মবায়নেঃ ১। জেলা শিক্ষা অফিসার, শরীয়তপুর।

১৭। প্রাথমিক শিক্ষা বিভাগঃ

            জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার, শরীয়তপুর সভায় জানান, গত মাসে কোন কর্মকর্তা থেকে সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিদর্শন প্রতিবেদন পাওয়া যায়নি। ২০১৩-১৪ অর্থ বছরে ২য় কিসিত্মর অর্থ বিতরণ করা হয়েছে। তিনি আরো জানান যে, সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষকের ৪৭ টি এবং সহকারী শিক্ষকের ৯৯ টি পদ শূন্য রয়েছে। জেলা প্রশাসক, শরীয়তপুর শিক্ষার মান উন্নয়নের বিষয়ে  উপজেলা নির্বাহী অফিসারসহ সকল কর্মকর্তাকে আমত্মরিক হওয়ার জন্য অনুরোধ করেন এবং কোন শিক্ষককে না পাওয়া গেলে জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসারকে জানানোর জন্য অনুরোধ করেন।

সিদ্ধামত্মঃ১।  জেলা পর্যায়ের প্রত্যেক কর্মকর্তাকে মাসে কমপক্ষে একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়  পরিদর্শণ করার জন্য অনুরোধ করা হয়।

            ২। বিভাগীয় কার্যক্রম সঠিক ও সুষ্ঠুভাবে সম্পাদনের জন্য অনুরোধ করা হয়।

বাসত্মবায়নেঃ ১। জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার, শরীয়তপুর। ২। জেলার সকল সরকারী দপ্তর প্রধান।


১৮। শরীয়তপুর পলস্নী বিদ্যুৎ সমিতিঃ

            জেনারেল ম্যানেজার, শরীয়তপুর পলস্নী বিদ্যুৎ সমিতি এর পক্ষে সভায় জানান যে, বর্তমানে বিদ্যুতের সার্বিক অবস্থা ভাল এবং বিদ্যুৎ সরবরাহ স্বাভাবিক পর্যায়ে রয়েছে। জেলা প্রশাসক, শরীয়তপুর বিদ্যুতের ন্যায্য হিস্যা মাদারীপুর থেকে আনার জন্য অনুরোধ করেন। চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ, গোসইরহাট বলেন বেপারী পাড়া ও দক্ষিণ কোদালপুর বাজার ও বিদ্যালয়ে বিদ্যুৎ দেয়া হচ্ছে না।

সিদ্ধামত্মঃ১। বিদ্যুৎ সরবরাহ স্বাভাবিক রাখার প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য অনুরোধ করা হয়।

            ২। বিদ্যুৎ ব্যবস্থাপনার বিষয়ে সতর্ক থাকাসহ জাতীয় সম্পদ রক্ষায় প্রশাসন, জনপ্রতিনিধি ও সংশিস্নষ্ট সকলের সতর্ক দৃষ্টি রাখার জন্য

                অনুরোধ করা হয়।

৩। সকল অফিস প্রধানকে বকেয়া বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ করার জন্য অনুরোধ করা হয়।

বাসত্মবায়নেঃ ১। জেনারেল ম্যানেজার, পলস্নী বিদ্যুৎ সমিতি, শরীয়তপুর।

১৯শরীয়তপুর বিদ্যুৎ সরবরাহ বিভাগঃ

            নির্বাহী প্রকৌশলী, শরীয়তপুর বিদ্যুৎ সরবরাহ সভায় বর্তমানে বিদ্যুতের সার্বিক অবস্থা ভাল এবং বিদ্যুৎ সরবরাহ স্বাভাবিক পর্যায়ে রয়েছে। জেলা প্রশাসক, শরীয়তপুর বিদ্যুতের ন্যায্য হিস্যা মাদারীপুর থেকে আনার জন্য অনুরোধ করেন। জেলা প্রশাসক, শরীয়তপুর বিদ্যুৎ যাওয়ার আধা ঘন্টা পূর্বে জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারকে জানানোর জন্য অনুরোধ করেন।

সিদ্ধামত্মঃ১। বিদ্যুৎ সরবরাহ স্বাভাবিক রাখার প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করার জন্য এবং বিুদ্যতের ন্যায্য হিস্যা মাদারীপুর থেকে আনার জন্য

                 অনুরোধ করা হয়।

            ২। বিদ্যুৎ ব্যবস্থাপনার বিষয়ে সতর্ক থাকাসহ জাতীয় সম্পদ রক্ষায় প্রশাসন, জনপ্রতিনিধি ও সংশিস্নষ্ট সকলকে সতর্ক দৃষ্টি রাখার জন্য

                অনুরোধ করা হয়।

৩। বিদ্যুৎ যাওয়ার আধা ঘন্টা পূর্বে জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারকে জানানোর জন্য অনুরোধ করা হয়।

৪। উপজেলা পর্যায়ে সকল অফিস প্রধানকে বকেয়া বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ করার জন্য অনুরোধ করা হয়।

বাসত্মবায়নেঃ ১।  নির্বাহী প্রকৌশলী, শরীয়তপুর বিদ্যুৎ সরবরাহ বিভাগ, ওজোপাডিকো।  ২। সংশিস্নষ্ট কর্তৃপক্ষ।

২০। যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরঃ

উপ-পরিচালক, যুবউন্নয়ন অধিদপ্তর, শরীয়তপুর সভায় জানান, যুব ক্লাব তালিকাভূক্তি করা হচ্ছে। এ পর্যমত্ম সর্বমোট তালিকাভূক্ত ক্লাবের সংখ্যা ১১২ টি প্রাপ্ত অনুদানের পরিমান ৯,৫১,০০০/- টাকা। বিভাগীয় কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে চলছে এবং গৃহীত সিদ্ধামত্মসমূহ যথাযথভাবে বাসত্মবায়ন করা হচ্ছে। বিভিন্ন ট্রেডে প্রশিক্ষণ কার্যক্রম জোরদারকরণের লক্ষ্যে এবং লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের জন্য  জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের কর্মকর্তা ও কর্মচারীদেরকে আরও তৎপর হওয়ার পরামর্শ দেয়া হয়।

সিদ্ধামত্মঃ১। উপ-পরিচালক, যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরকে প্রশিক্ষণ কার্যক্রম ১০০% সম্পন্ন করার এবং দাপ্তরিক কাজ যথাযথভাবে সম্পন্ন করার জন্য

                অনুরোধ করা হয়।

বাসত্মবায়নেঃ ১। উপ-পরিচালক , যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর, শরীয়তপুর।

২১। সমাজ সেবা অধিদপ্তরঃ

            উপ-পরিচালক, সমাজ সেবা অধিদপ্তর জানান, রোগী কল্যান সমিতির কার্যক্রম সকল উপজেলায় চলছে এ ব্যাপারে সকল উপজেলা নির্বাহী অফিসারগণকে সার্বিক সহযোগিতা করার জন্য অনুরোধ করেন। এছাড়া বয়স্ক ভাতা, বিধবা ভাতা, প্রতিবন্ধী ভাতা এবং প্রতিবন্ধী শিক্ষা উপবৃত্তি বিতরণ ১০০%। বিভাগের কার্যক্রম স্বাভাবিকভাবে চলছে। কোন সমস্যা নেই। বিধবা ভাতা ও মুক্তিযোদ্ধা ভাতার তালিকা  প্রেরণ করার জন্য উপজেলা চেয়ারম্যানগণকে অনুরোধ করা হয়।

সিদ্ধামত্মঃ ১।  দাপ্তরিক কাজ যথাযথভাবে সম্পন্ন করার জন্য অনুরোধ করা হয়।

২। বিধবা ভাতা ও মুক্তিযোদ্ধা ভাতার তালিকা  প্রেরণ করার জন্য উপজেলা চেয়ারম্যানগণকে অনুরোধ করা হয়।

বাসত্মবায়নেঃ  ১। উপ-পরিচালক, সমাজ সেবা অধিদপ্তর, শরীয়তপুর।

২২। বি আর ডি বিঃ

উপ-পরিচালক, বিআরডিবি, শরীয়তপুর জানান যে, শরীয়তপুর জেলার ‘একটি বাড়ি একটি খামার’ প্রকল্পের ০৬ টি  উপজেলার মধ্যে  শরীয়তপুর সদর ৯২.৯৯ লক্ষ, জাজিরা ৮০.২৮ লক্ষ, নড়িয়া ৭৪.৪৬ লক্ষ, ভেদরগঞ্জ ৮৮.৪৬ লক্ষ, ডামুড্যা ৪২.৩১ লক্ষএবং গোসাইরহাট উপজেলায়  ৫৫.০৩ লক্ষটাকা সঞ্চয় আদায় হয়েছে। শরীয়তপুর জেলায় সর্বমোট ৪৩৩.০৩ লক্ষটাকা সঞ্চয় আদায় হয়েছে। তাছাড়া ঋণ বিতরণ করা হয়েছে শরীয়তপুর সদর ৮৬.১০ লক্ষ, নড়িয়া ৫৮.০০ লক্ষ, জাজিরা ১৮১.২০ লক্ষ, ডামুড্যা ৫২.১২ লক্ষ, ভেদরগঞ্জ ২৪০.০৯ লক্ষ,  গোসাইরহাট ৭৬.৩৪ লক্ষটাকা। শরীয়তপুর জেলায় মোট ঋণ বিতরণের পরিমান ৬৯৩.৮৫ লক্ষটাকা, ৬৭৮৫ জন উপকার ভোগীর মধ্যে এই ঋণ বিতরণ করা হয়েছে। ঋণ আদায় হয়েছে শরীয়তপুর সদর ২০.১৯ লক্ষ, নড়িয়া ১৬.৭৮ লক্ষ, জাজিরা ৪৫.০৮ লক্ষ, ডামুড্যা ১৬.৮৫ লক্ষ, ভেদরগঞ্জ ২৩.৬২ লক্ষ,  গোসাইরহাট ২১.৫৩ লক্ষ টাকা। শরীয়তপুর জেলায় মোট ঋণ আদায়ের পরিমান ১৪৪.০৫ লক্ষটাকা। এছাড়া অন্যান্য কর্মসূচীর মধ্যে দলগঠন ৫৩%, সদস্য ভর্তি ৮৪%, সঞ্চয় আমানত ৭৬%, ঋণ বিতরণ ৯৫% এবং ঋণ আদায় ৯৬%। এছাড়া দাপ্তরিক অন্যান্য কার্যক্রম সঠিকভাবে  চলছে। জেলা প্রশাসক, শরীয়তপুর একটি বাড়ি একটি খামারের সম্প্রসারিত কার্যক্রম যাতে সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে সম্পন্ন হয় সেজন্য উপজেলা নির্বাহী অফিসারদের সংশিস্নষ্টকরে যথাযথভাবে কার্যক্রম গ্রহণ  করার জন্য অনুরোধ করেন। জেলা প্রশাসক, শরীয়তপুর আগামী মাসের মধ্যে একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্পের সাফল্যজনক অগ্রগতি দেখানোর জন্য অনুরোধ করেন।

সিদ্ধামত্মঃ১। ‘একটি বাড়ি একটি খামার’ সম্প্রসারিত প্রকল্পের সাফল্য জনক অগ্রগতি দেখানোর জন্য এবং পূর্বের প্রকল্প যথাযথভাবে বাসত্মবায়ন ও

                 দাপ্তরিক কার্যক্রম বিধি মোতাবেক সম্পাদন করার জন্য অনুরোধ করা হয়।

বাসত্মবায়নেঃ  ১। উপ-পরিচালক, বিআরডিবি, শরীয়তপুর   ২। উপজেলা নির্বাহী অফিসার (সকল) , শরীয়তপুর ।

২৩। বাংলাদেশ শিশু একাডেমীঃ   

            জেলা শিশু বিষয়ক কর্মকর্তা সভায় জানান, শরীয়তপুর জেলার স্বাভাবিক কার্যক্রমের অংশ হিসেবে শিশু বিকাশ কেন্দ্র, প্রাক-প্রাথমিক শিক্ষা কার্যক্রম, শিশুদের বিভিন্ন সাংস্কৃতিক প্রশিক্ষণ কার্যক্রম, লাইব্রেরীর কার্যক্রম যথাযথভাবে চলছে। এছাড়া মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে শিশুদের মধ্যে  চিত্রাংকণ, আবৃত্তি, সংগীত, নৃত্য, মিউজিক্যাল গেইম ইত্যাদি প্রতিযোগিতা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্টানের আয়োজন করা হয়েছে।

সিদ্ধামত্মঃ১।  সরকারী কর্মসূচী  যথাযথভাবে সম্পন্ন করার জন্য অনুরোধ করা হয়।

বাসত্মবায়নেঃ ১। জেলা শিশু বিষয়ক কর্মকর্তা, শরীয়তপুর।


২৪। ক্রীড়া বিভাগঃ

            জেলা ক্রীড়া অফিসার, শরীয়তপুর সভায় জানান তাঁর অফিসের কার্যক্রম স্বাভাবিকভাবে চলছে। কোন সমস্যা নেই।

সিদ্ধামত্মঃ১।  জেলা ক্রীড়া অফিসারকে দাপ্তরিক কার্যক্রম যথাযথ এবং সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করার জন্য অনুরোধ করা হয়।             

বাসত্মবায়নেঃ  ১। জেলা ক্রীড়া অফিসার, শরীয়তপুর।

২৫। সমবায় বিভাগঃ 

            জেলা সমবায় অফিসার, শরীয়তপুর সভায় জানান তাঁর অফিসের কার্যক্রম স্বাভাবিকভাবে চলছে। কোন সমস্যা নেই। জেলা প্রশাসক, শরীযতপুর বলেন ম্যাক্রি্ম ও ফিউচারের মতে যাতে অন্য কোন প্রতিষ্ঠান টাকা হাতিয়ে না নিতে পারে সে দিকে লÿ্য রাখার জন্য অনুরোধ করেন।

সিদ্ধামত্মঃ১। সমবায় বিভাগের কাজকর্ম যথাযথভাবে সম্পন্ন  করার জন্য জেলা সমবায় অফিসার, শরীয়তপুরকে অনুরোধ করা হয়।

বাসত্মবায়নেঃ  ১। জেলা সমবায় অফিসার, শরীয়তপুর। ২। উপজেলা নির্বাহী অফিসার ,ভেদরগঞ্জ, শরীয়তপুর ।

২৬। বিসিকঃ

            উপ-ব্যবস্থাপক, বিসিক, শরীয়তপুর সভায় জানান, এ পর্যমত্ম ১১ টি শিল্প ইউনিট চালু হয়েছে এবং আরও ১৬ টি শিল্প ইউনিটের নির্মাণ কাজ চলছে। বিসিকের অন্যান্য উন্নয়নমূলক ও দাপ্তরিক কাজ যথাযথভাবে চলছে। কোন সমস্যা নেই।

সিদ্ধামত্মঃ১। বিসিকের দৈনন্দিন কার্যক্রম যথাযথভাবে সম্পন্ন  করার জন্য অনুরোধ করা হয় ।

           ২। পস্নট বরাদ্দের প্রয়োজনীয় কার্যক্রম নির্ধারিত সময়ের মধ্যে সমাপ্ত করে পস্নট মালিকদের উৎপাদনে যাওয়ার ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য অনুরোধ করা হয়।

বাসত্মবায়নেঃ ১। উপ ব্যবস্থাপক, বিসিক, শরীয়তপুর।

২৭। উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা ব্যুরোঃ

            সহকারী পরিচালক, উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা ব্যুরো, শরীয়তপুর সভায় অনুপস্থিত থাকায় তাঁর বিভাগের কার্যক্রম সম্পর্কে আলোচনা করা  গেল না।

সিদ্ধামত্মঃ১। বিভাগীয় কার্যক্রম সঠিকভাবে সম্পাদনের জন্য  অনুরোধ করা হয়।

বাসত্মবায়নেঃ ১। সহকারী পরিচালক, উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা ব্যুরো, শরীয়তপুর।

২৮। বি টি সি এল (টেলিফোন বিভাগ)ঃ   

            সহকারী প্রকৌশলী, বিটিসিএল, শরীয়তপুর সভায় জানান, বিভাগীয় কার্যক্রম স্বাভাবিক ভাবে চলছে এবং কোন সমস্যা নেই। ক্রটিযুক্ত টেরিফোন স্বল্প সময়ের মধ্যে ক্রটিমুক্তির ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। দাপ্তরিক কার্যক্রম যথাযথ ভাবে পালন করা হচ্ছে।

সিদ্ধামত্মঃ১ ।  ত্রম্নটিপূর্ণ টেলিফোন লাইনগুলো মেরামত করাসহ টেলিফোন লাইনসমূহ সার্বক্ষণিক সচল রাখার সর্বাত্মক ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য অনুরোধ করা হয়।

২। সকল অফিস প্রধানকে বকেয়া টেলিফোন বিল পরিশোধ করার জন্য অনুরোধ করা হয়।

বাসত্মবায়নেঃ ১। সহকারী প্রকৌশলী, বি টি সি এল, শরীয়তপুর।

২৯। বন বিভাগঃ

            ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা, বন বিভাগ, শরীয়তপুর সভায় অনুপস্থিত থাকায় তাঁর বিভাগের কার্যক্রম সম্পর্কে আলোচনা করা  গেল না।

সিদ্ধামত্মঃ১। অবৈধ করাতকল বন্ধে বিধি মোতাবেক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ এবং বিভাগীয় কার্যক্রম যথাযথভাবে সম্পাদন করার জন্য অনুরোধ করা হয়।

বাসত্মবায়নেঃ ১। ফরেস্ট রেঞ্জ অফিসার, বন বিভাগ, শরীয়তপুর।

৩০। জেলা তথ্য অফিসঃ

            জেলা তথ্য অফিসার, শরীয়তপুর সভায় জানান, তাঁর বিভাগের কার্যক্রম স্বাভাবিকভাবে চলছে। বর্তমানে কোন সমস্যা নেই।

সিদ্ধামত্মঃ১। সরকারী কর্মসূচী বাসত্মবায়নে প্রয়োজনীয় সহায়তা অব্যাহত রাখার জন্য অনুরোধ করা হয়।      

বাসত্মবায়নেঃ ১। জেলা তথ্য অফিসার, শরীয়তপুর।

৩১। জেলা সঞ্চয় অফিসঃ

            সহকারী পরিচালক, জেলা সঞ্চয় অফিস, শরীয়তপুর সভায় তাঁর বিভাগের কার্যক্রম স্বাভাবিকভাবে চলছে। বর্তমানে কোন সমস্যা নেই। সঞ্চয়ের অগ্রগতির হার ৭৩.৩৪%।

সিদ্ধামত্মঃ১। জাতীয় সঞ্চয় পরিদপ্তরের কার্যক্রম সঠিকভাবে সম্পাদনকরাসহ ব্যক্তিগত উদ্যোগের মাধ্যমে সঞ্চয় কার্যক্রম ত্বরান্বিত করতে অনুরোধ করা হয়।

বাসত্মবায়নেঃ ১। সহকারী পরিচালক, জেলা সঞ্চয় অফিস, শরীয়তপুর।

৩২। আনসার ও ভিডিপিঃ

            জেলা কমান্ড্যান্ট, আনসার ও ভিডিপি, শরীয়তপুর সভায় জানান, তাঁর বিভাগের কার্যক্রম স্বাভাবিকভাবে চলছে। বর্তমানে কোন সমস্যা নেই।

সিদ্ধামত্মঃ            ১। বিভাগীয় কার্যক্রম সঠিকভাবে সম্পাদনের জন্য  অনুরোধ করা হয়।

বাসত্মবায়নেঃ ১। জেলা কমান্ড্যান্ট, আনসার ও ভিডিপি, শরীয়তপুর।

৩৩। ইসলামিক ফাউন্ডেশনঃ

            উপ-পরিচালক, ইসলামিক ফাউন্ডেশন, শরীয়তপুর জানান যে, ২০১৪ সালে জেলার ০৬ টি উপজেলায় ২৬১ টি প্রাক-প্রাথমিক, ১৫২ টি সহজ কুরআন শিক্ষা এবং ১২ টি বয়স্ক শিক্ষা কেন্দ্র চালু রয়েছে। প্রতিটি প্রাক-প্রাথমিক শিক্ষাকেন্দ্রে ৩০ জন, সহজ কুরআন শিক্ষা কেন্দ্রে ৩৫ জন এবং বয়স্ক শিক্ষা কেন্দ্রে ২৫ জন শিক্ষার্থীকে নিয়মিত পাঠদান অব্যাহত আছে। জেলার সকল উপজেলায় মাসিক  সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত সমন্বয় সভায় উপস্থিত সকল ইমামগণকে জুমআর নামাজের খুৎবার পূর্বে আলোচনায় সন্ত্রাস ও জঙ্গীবাদ বিরোধী বক্তব্য রাখার জন্য অনুরোধ জানানো হয়েছে। উপজেলা পর্যায়ে এ সংক্রামত্ম সভা অব্যাহত রয়েছে। এছাড়া অন্যান্য কার্যক্রম স্বাভাবিকভাবে চলছে। জেলা প্রশাসক, শরীয়তপুর  ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান, সদস্যদের সম্পৃক্ত করে ইমামদের সন্ত্রাস ও জঙ্গীবাদ বিরোধী বক্তব্য প্রদান অব্যাহত রাখার জন্য অনুরোধ করেন।

সিদ্ধামত্মঃ১। জুমআর নামাজের খুৎবার পূর্বে সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ বিরোধী বক্তব্য রাখা এবং বাল্য বিবাহ বন্ধ করার ব্যাপারে জনগণকে উদ্বুদ্ধ করার জন্য মসজিদের ইমাম সাহেবদের উৎসাহিত করতে নিয়মিত সভা করাসহ  জনসচেতনতা বৃদ্ধির  লক্ষে  কাজ  করার জন্য  এবং মসজজেদরে ইমামদের অভিজ্ঞ আলেমগণকে দিয়ে প্রশিক্ষনের ব্যবস্থা করার জন্য অনুরোধ করা হয়।

বাসত্মবায়নেঃ  ১। উপপরিচালক, ইসলামিক ফাউন্ডেশন, শরীয়তপুর।


 

৩৪। গণ-গ্রন্থাগার অধিদপ্তরঃ 

            লাইব্রেরিয়ান, ভাষা সৈনিক ডাঃ গোলাম মাওলা সরকারী গণ-গ্রন্থাগার, শরীয়তপুরসভায় জানান, বিভাগীয় কার্যক্রম সুষ্ঠু ও যথাযথভাবে সম্পাদিত হচ্ছে।

সিদ্ধামত্মঃ  ১। বিভাগীয় কার্যক্রম যথাযথভাবে সম্পাদনের জন্য অনুরোধ করা হয়।

বাসত্মবায়নেঃ   ১। লাইব্রেরিয়ান, ভাষা সৈনিক ডাঃ গোলাম মাওলা সরকারী গণগ্রন্থাগার, শরীয়তপুর।

৩৫। মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরঃ 

             জেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা, শরীয়তপুর সভায় জানান, দরিদ্র মা’র মাতৃত্বকালীন ভাতার বরাদ্দ পত্র পাওয়া গিয়েছে। ভাতা বিতরণ কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন। এছাড়া বিভাগীয় কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে পরিচালিত হচ্ছে।

সিদ্ধামত্মঃ১।  বিভাগীয়  কার্যক্রম যথাযথভাবে সম্পন্ন  করার জন্য   জন্য অনুরোধ করা হয় ।

বাসত্মবায়নেঃ   ১। জেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা, শরীয়তপুর।

৩৬। ফায়ার সার্ভিসঃ

            উপ-সহকারী পরিচালক, ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স, সভায় অনুপস্থিত থাকায় তাঁর বিভাগের কার্যক্রম সম্পর্কে আলোচনা করা গেল না।

সিদ্ধামত্মঃ ১।  বিভাগীয় সকল কার্যক্রম যথাযথভাবে সম্পাদন করাসহ ফায়ার সার্ভিস স্টেশন নির্মাণের লক্ষে স্থান নির্বাচনের বিষয়ে সংশিস্নষ্ট উপজেলা নির্বাহী অফিসারদের সাথে যোগাযোগ করতে অনুরোধ করা হয়।

বাসত্মবায়নেঃ  ১। উপ-সহকারী পরিচালক, ফায়ার সার্ভিস, শরীয়তপুর এবং ২। সংশিস্নষ্ট কর্মকর্তাগণ।

৩৭। মার্কেটিং বিভাগঃ     

            জেলা বাজার অনুসন্ধানকারী জানান, মার্কেটিং বিভাগ সভায়তাঁর বিভাগের কার্যক্রম স্বাভাবিকভাবে চলছে। কোন সমস্যা নেই। জেলা প্রশাসক, শরীয়তপুর বনিক সমিতির সভাপতি/সম্পদকদের নিয়ে  উপজেলা চেয়ারম্যান, উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে উপস্থিত রেখে মূল্য তালিকা নিশ্চিত করনের বিষয়ে সভা করার জন্য অনুরোধ করেন।

সিদ্ধামত্মঃ          ১। দ্রব্যমূল্য স্থিতিশীল রাখার জন্য নিয়মিত বাজার মনিটরিংসহ জেলা টাস্কফোর্স কমিটিকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের অনুরোধ জানানো হয়।

                ২। শরীয়তপুর জেলার সকল বাজারের বনিক সমিতির সভাপতি/সম্পদকদের নিয়ে সভা করার বিষয়ে স্ব স্ব উপজেলা চেয়ারম্যান, উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে উপস্থিত রেখে মূল্য তালিকা নিশ্চিত করনের বিষয়ে সভা করার জন্য বাজার অনুসন্ধানকারীকে অনুরোধ করা হয়।

বাসত্মবায়নেঃ ১। জেলা বাজার অনুসন্ধানকারী/জেলা টাস্কফোর্স কমিটি, শরীয়তপুর।

৩৮। বিবিধ (১) জঙ্গীবাদ দমন ঃ

            সভাপতি সকল উপজেলা  নির্বাহী অফিসারগণের সহযোগিতায় উপ-পরিচালক, ইসলামিক ফাউন্ডেশনকে উপজেলা পর্যায়ের অফিসার, মসজিদের ইমাম এবং শিক্ষকদের নিয়ে জঙ্গীঁবাদ দমন সংক্রামত্ম উদ্বুদ্ধকরণ সভা করার জন্য অনুরোধ জানান। এছাড়া জঙ্গীঁবাদ বিষয়ক কার্যকলাপ সম্পর্কে  সকলকে সতর্ক এবং সোচ্চার থাকার জন্য  আহবান জানান। ধর্মীয় দৃষ্টিকোণ থেকে মানুষকে উদ্বুদ্ধ করতে অনুরোধ জানান। তিনি বলেন, ইসলামে জঙ্গীবাদের কোন স্থা্ন নেই, কিছু কিছু গোষ্ঠী উস্কানী দিচ্ছে। এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় প্রতিরোধমূলক ও কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য উপ-পরিচালক, ইসলামিক ফাউন্ডেশনকে অনুরোধ করেন।

সিদ্ধামত্মঃ            ১। সকল উপজেলা নির্বাহী অফিসার, উপজেলা পর্যায়ের কর্মকর্তা, শিক্ষক সমন্বয়ে উপজেলা পর্যায়ে সভা করার জন্য অনুরোধ জানানো হয়।

২। জঙ্গীঁবাদ দমনের বিষয়ে মসজিদ ও মাদ্রাসাসমূহে প্রচারণা চালানো অব্যাহত রাখার জন্য অনুরোধ জানানো হয়।

৩। গৃহীত কার্যক্রম সম্পর্কে জেলা প্রশাসককে অবহিত করার জন্যও অনুরোধ করা হয়।

বাসত্মবায়নেঃ   ১। উপজেলা নির্বাহী অফিসার (সকল), শরীয়তপুর ২। উপ-পরিচালক, ইসলামিক ফাউন্ডেশন, শরীয়তপুর।

৩৮। বিবিধ (২) ই-গভর্ন্যান্সঃ

জেলা প্রশাসক, শরীয়তপুর,  উপজেলা নির্বাহী অফিসারদের ইউনিয়ন তথ্য ও সেবা কেন্দ্র এবং অনলাইন জন্ম নিবন্ধন কার্যক্রম সম্পর্কে সার্বক্ষণিক তদারকি করে লÿ্যমাত্রা অর্জনের জন্য অনুরোধ করেন। উপজেলা নির্বাহী অফিসারদের ইউনিয়ন ভূমি অফিস পরিদর্শনের সময় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও সদস্যদের সাথে অনলাইন জন্ম নিবন্ধন এবং ইউনিয়ন তথ্য ও সেবা কেন্দ্র সম্পর্কে আলোচনা করে অগ্রগতির খোঁজ খবর নেয়ার জন্য অনুরোধ জানান। জেলা প্রশাসক, শরীয়তপুর বলেন, প্রত্যেক ইউনিয়ন পরিষদের মাসিক সভায় ইউনিয়ন তথ্য ও সেবা কেন্দ্র সম্পর্কে আলোচনা করার জন্য এবং ইউনিয়ন পরিষদের সকল কাজ ইউনিয়ন তথ্য ও সেবা কেন্দ্রের মাধ্যমে করার জন্য অনুরোধ করেন। জেলা প্রশাসক, শরীয়তপুর বলেন ইউআইএসরি সকল উদ্যোক্তাদের চেয়ারম্যানদের সাথে চুক্তিবদ্ধ হওয়ার জন্য উপজেলা নির্বাহী অফিসারগণকে প্রয়োজনীয় কার্যক্রম গ্রহণের অনুরোধ করা হয়।

সিদ্ধামত্মঃ১। ইউনিয়ন তথ্য ও সেবা কেন্দ্রসমূহ পরিদর্শন কার্যক্রম জোরদার করে এবং শরীয়তপুর জেলার সফলতার ধারা অব্যাহত রাখার জন্য অনুরোধ করা হয়।

           ২। ইউনিয়ন তথ্য ও সেবা কেন্দ্রের উদ্যোক্তাদের ইউপি চেয়ারম্যানদের সাথে চুক্তিবদ্ধ করার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য উপজেলা নির্বাহী অফিসারগণকে অনুরোধ করা হয়।      

বাসত্মবায়নেঃ   ১। জেলা পর্যায়ের সকল কর্মকর্তা। ২। উপজেলা নির্বাহী অফিসার (সকল), শরীয়তপুর।

৩৮। বিবিধ (৩)-সামগ্রিকঃ

 

উপ-পরিচালক (ভারপ্রাপ্ত), স্থানীয় সরকার, শরীয়তপুর বলেন এ জেলায় অন্যান্য জেলার ন্যয় স্থানীয় সরকার শাখায় একজন সহকারী কমিশনার পদায়নের জন্য অনুরোধ করেন। আলোচনামেত্ম অত্র কালেক্টরেটের সহকারী কমিশনার জনাব মোঃ সোহাগ হাওলাদারকে স্থানীয় সরকার শাখায় সহকারী কমিশনার হিসেবে দায়িত্ব প্রদানের সিদ্ধামত্ম গৃহীত হয়।

 

সিদ্ধামত্মঃ সহকারী কমিশনার জনাব মোঃ সোহাগ হাওলাদারকে স্থানীয় সরকার শাখায় সহকারী কমিশনার হিসেবে দায়িত্ব প্রদানের সিদ্ধামত্ম গৃহীত হয়

বাসত্মবায়নেঃ অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক), শরীয়তপুর।
সভাপতি সমাপনী বক্তব্যে সকল দপ্তর প্রধানকে তাঁদের বিভাগীয় কার্যক্রম যথাযথভাবে সম্পাদনের জন্য অনুরোধ করেন। সরকারী-বেসরকারী ও স্বায়ত্বশাসিত সংস্থার কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কর্মস্থলে অবস্থান করার সরকারী বিধি বিধান মেনে চলার জন্যও তিনি সংশিস্নষ্ট সকলকে অনুরোধ করেন। এছাড়া তিনি সরকারী সিদ্ধামত্ম অনুযায়ী জেলা উন্নয়ন ও সমন্বয় কমিটিসহ অন্যান্য গুরম্নত্বপূর্ণ সভাসমূহে প্রতিনিধি প্রেরণ না করে অফিস প্রধানদেরকে স্বয়ং উপস্থিত থাকার জন্য অনুরোধ করেন। সকল উন্নয়ন প্রকল্প বাসত্মবায়নস্থলে সাইট বুক সংরক্ষণের জন্য সংশিস্নষ্টদের অনুরোধ করা হয়। 

সভায় আর কোন আলোচনা না থাকায় সভাপতি উপস্থিত সকলকে ধন্যবাদ জানিয়ে সভার সমাপ্তি ঘোষণা করেন।

 

 

         (রাম চন্দ্র দাস)

                                                                                                                                 জেলা প্রশাসক 

                                                                                                                                   শরীয়তপুর।

 

স্মারক নং - ০৫.৩০.৮৬০০.০১০.০৭.০০২.১৪-             (৩৫)/১(৮০)                                   তারিখঃ          মে ২০১৪ খ্রিঃ।

 

            অনুলিপি সদয় অবগতি/অবগতি ও প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য প্রেরণ করা হলোঃ

 

০১। মন্ত্রিপরিষদ সচিব, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ, বাংলাদেশ সচিবালয়, ঢাকা।

০২। সিনিয়র সচিব, স্থানীয় সরকার বিভাগ/অর্থ মন্ত্রণালয়, জ্বালানী ও খনিজ সম্পদ বিভাগ, বাংলাদেশ সচিবালয়, ঢাকা।

০৩। সচিব, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়/ খাদ্য মন্ত্রণালয়/ত্রাণ ও দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রণালয়/কৃষি মন্ত্রণালয়/পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়/ শিক্ষা মন্ত্রণালয়/ সেতু বিভাগ, যোগাযোগ মন্ত্রণালয়/ সড়ক ও রেল বিভাগ, যোগাযোগ মন্ত্রণালয়/পলস্নী উন্নয়ন ও সমবায় বিভাগ/টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়/ মৎস্য ও প্রাণি সম্পদ মন্ত্রণালয়/ শিল্প মন্ত্রণালয়/ পরিবেশ ও বন মন্ত্রণালয়/ প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়/ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়/ পূর্ত মন্ত্রণালয়, বাংলাদেশ সচিবালয়, ঢাকা।

০৪। কমিশনার, ঢাকা বিভাগ, ঢাকা।

০৫। চেয়ারম্যান, বাংলাদেশ কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজ কর্পোরেশন, বিসিআইসি ভবন ৩০-৩১, দিলকুশা বা/এ, ঢাকা/বিসিক, ১৩৭/১৩৮ মতিঝিল বা/এ, ঢাকা / পলস্নী বিদ্যুতায়ন বোর্ড, ঢাকা/ পানি উন্নয়ন বোর্ড, মতিঝিল, ঢাকা/ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড, ঢাকা।

০৬।  মহাপরিচালক, পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তর, ৬-কারওয়ান বাজার, ঢাকা/ইসলামিক ফাউন্ডেশন প্রধান কার্যালয়, শেরেবাংলা নগর, আগারগাঁও, ঢাকা/ মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর, ১৬, আব্দুল গণিরোড, ঢাকা/ প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর, মিরপুর, ঢাকা/ সমাজ সেবা অধিদপ্তর, সমাজ সেবা কমপেস্নক্স ভবন, পস্নট নং -৮/বি-১, শেরে বাংলানগর, আগারগাঁও, ঢাকা/ কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর, খামারবাড়ী, ফার্মগেট, ঢাকা/স্বাস্থ্য অধিদপ্তর, মহাখালী রেলগেট, ঢাকা/ খাদ্য অধিদপ্তর, খাদ্য ভবন, ১৬ আবদুল গণি রোড, ঢাকা/ প্রাণি সম্পদ অধিদপ্তর, খামারবাড়ী ফার্মগেট, ঢাকা/মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর,৩৭/৩ ইস্কাটন গার্ডেন রোড, ঢাকা/মৎস্য অধিদপ্তর, মৎস্য পার্ক এভিনিউ, ঢাকা/গণযোগাযোগ অধিদপ্তর, এজিবি ভবন, সেগুনবাগিচা, ঢাকা/ যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর, যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়, ১০৮ মতিঝিল বা/এ, ঢাকা/ উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা ব্যুরো, ২৩২/১ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮ ।

০৭। প্রধান প্রকৌশলী, গণপূর্ত অধিদপ্তর, ঢাকা/স্থানীয় সরকার প্রকৌশলী অধিদপ্তর, আগারগাঁও,ঢাকা/সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তর, ঢাকা/ জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর, কাকরাইল, ঢাকা/ শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর, ১৬, আঃ গনি রোড, ঢাকা/সিএমএমইউ, মহাখালী, ঢাকা।

০৮।  ......................................................................................................................................., শরীয়তপুর।

 

 

 

 

                                                                                                                          (মোঃ আসিব আহসান)

                     উপ-পরিচালক

              স্থানীয় সরকার, শরীয়তপুর।


পরিশিষ্ট ‘‘ক’’ঃ সভায় উপস্থিত সদস্যগণের তালিকা (স্বাক্ষরের ক্রমানুসারে নয়)ঃ

 

০১।    জনাব মোঃ আসিব আহসান, উপ-পরিচালক, স্থানীয় সরকার, শরীয়তপুর।

০২।    জনাব মোঃ মাহাবুবুবর রহমান, পুলিশ সুপার এর পক্ষে, শরীয়তপুর।

০৩।    জনাব ডাঃ মুনীর আহমদ খান, সিভিল সার্জন (ভারপ্রাপ্ত), শরীয়তপুর।

০৪।    জনাব আবদুর রব মুন্সী, মেয়র, শরীয়তপুর পৌরসভা, শরীয়তপুর।

০৫।    জনাব আবুল ফজল, চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ, শরীয়তপুর সদর, শরীয়তপুর।

০৬।    জনাব মোঃ আলমগীর মাঝি, চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ, ডামুড্যা, শরীয়তপুর।

০৭।    জনাব এ. কে. এম. ইসমাইল হক, চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ, নড়িয়া, শরীয়তপুর।

০৮।    জনাব সৈয়দ নাসির উদ্দিন, চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ, গোসাইরহাট, শরীয়তপুর।

০৯।    জনাব মোঃ আসাদুজ্জামান, উপজেলা নির্বাহী অফিসার, শরীয়তপুর সদর, শরীয়তপুর।

১০।    জনাব মোঃ সাইদুজ্জামান, উপজেলা নির্বাহী অফিসার, ডামুড্যা, শরীয়তপুর।

১১।    জনাব মোঃ জহিরম্নল ইসলাম, উপজেলা নির্বাহী অফিসার, নড়িয়া, শরীয়তপুর।

১২।    জনাব মোসাঃ কামরম্নন্নাহার, উপজেলা নির্বাহী অফিসার, গোসাইরহাট, শরীয়তপুর।

১৩।    জনাব মোসাঃ কামরম্নন্নাহার, প্রশাসক, গোসাইরহাট পৌরসভা, গোসাইরহাট, শরীয়তপুর।

১৪।    জনাব মোঃ মেহেদী হাসান, নির্বাহী প্রকৌশলী এর পক্ষে, গণপূর্ত বিভাগ, শরীয়তপুর।

১৫।    জনাব মোঃ নূরম্নল হক, উপ-পরিচালক এর পক্ষে, কৃষি সম্পসারণ অধিদপ্তর, শরীয়তপুর।

১৬।    জনাব মোঃ জাকির হোসেন, নির্বাহী প্রকৌশলী, সড়ক ও জনপথ বিভাগ, শরীয়তপুর।

১৭।    জনাব মোঃ রেজাউল করিম, অধ্যক্ষ, সরকারি গোলাম হায়দার খান মহিলা কলেজ, শরীয়তপুর।

১৮।    জনাব আসাদুজ্জামান খান, জেলা তথ্য অফিসার, শরীয়তপুর।

১৯।    জনাব গোপাল চন্দ্র মন্ডল, জেলা হিসাব রক্ষণ অফিসার এর পক্ষে, শরীয়তপুর।

২০।    জনাব ওহিদুজ্জামান মুন্সী, জেলা নির্বাচন অফিসার, শরীয়তপুর।

২১।    জনাব দ্বীন মোহাম্মদ, উপ-পরিচালক এর পক্ষে, পরিবার পকিল্পনা অধিদপ্তর, শরীয়তপুর।

২২।    জনাব মোঃ আবদুস সালাম, নির্বাহী প্রকৌশলী এর পক্ষে, জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর, শরীয়তপুর।

২৩।    জনাব মোঃ রফিকুল ইসলাম, জেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা এর পক্ষে, শরীয়তপুর।

২৪।    জনাব মোঃ মাহবুবুল ইসলাম, উপ-পরিচালক, সমাজসেবা অধিদপ্তর, শরীয়তপুর।

২৫।    জনাব বাবুল চন্দ্র মালো, সহকারী প্রকৌশলী (ভারপ্রাপ্ত), শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর, শরীয়তপুর।

২৬।    জনাব আলেয়া ফেরদৌসী শিখা, জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার, শরীয়তপুর।

২৭।    জনাব মোহাম্মদ রম্নকুনুজ্জামান, ডিস্ট্রিক ফ্যাসিলিটেটর, এলজিএসপি-২, শরীয়তপুর।

২৮।    জনাব মোঃ ফিরোজ মাতুববর, প্রধান শিক্ষক এর পক্ষে, পালং তুলাসার গুরম্নদাস সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়, শরীয়তপুর।

২৯।    জনাব দিলীপ কুমার বাড়ৈ, প্রধান শিক্ষক এর পক্ষে, শরীয়তপুর সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, শরীয়তপুর।

৩০।    জনাব মোঃ বেলায়েত হোসেন, লাইব্রেরীয়ান, ভাষা সৈনিক ডাঃ গোলাম গোলাম মাওলা গণগ্রন্থাগার, শরীয়তপুর।

৩১।    জনাব মোঃ গোলাম কিবরিয়া, জেলা সমবায় অফিসার, শরীয়তপুর।

৩২।    জনাব শাহ নূরজ্জামান, উপ-ব্যবস্থাপক, বিসিক, শরীয়তপুর।

৩৩।    জনাব মোঃ তবিবর রহমান, নির্বাহী প্রকৌশলী, শরীয়তপুর বিদ্যুৎ সরবরাহ, শরীয়তপুর।

৩৪।    জনাব মোঃ সাহাবুদ্দীন, উপ-পরিচালক, ইসলামিক ফাউন্ডেশন, শরীয়তপুর।

৩৫।    জনাব মোঃ শাহিন উদ্দিন, জেলা শিশু বিষয়ক কর্মকর্তা এর পক্ষে, জেলা শিশু একাডেমী, শরীয়তপুর।

৩৬।    জনাব এম. এ. কুদ্দুস দেওয়ান, সহকারী প্রকৌশলী, বিটিসিএল, শরীয়তপুর।

৩৭।    জনাব মোঃ মজিবর রহমান, উপ-পরিচালক, বিআরডিবি, শরীয়তপুর।

৩৮।    জনাব মোঃ আঃ জলিল তালুকদার, জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক, শরীয়তপুর।

৩৯।    জনাব মোঃ আবু তালেব পাটোয়ারী, উপ-পরিচালক, যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর, শরীয়তপুর।

৪০।    জনাব শিরিনা আক্তার, জেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা, শরীয়তপুর।

৪১।    জনাব শেখ আব্দুর রহমান, জেনারেল ম্যানেজার এর পক্ষে, পলস্নী বিদ্যুৎ সমিতি, শরীয়তপুর।

৪২।    জনাব দয়াল চন্দ্র রায়, জেলা মৎস্য কর্মকর্তা এর পক্ষে, শরীয়তপুর।

৪৩।    জনাব শফিকুল ইসলাম, সহকারী পরিচালক, জাতীয় সঞ্চয় পরিদপ্তর, শরীয়তপুর।

৪৪।    জনাব আব্দুল মান্নান, উপ-পরিচালক, জেলা পরিসংখ্যান অফিস, শরীয়তপুর।

৪৫।    জনাব মোঃ আয়ুব আলী, সহকারী প্রকৌশলী, ক্ষুদ্রসেচ প্রকল্প, বিএডিসি, শরীয়তপুর।

৪৬।    জনাব মোঃ ইউসুফ হোসেন, জেলা বাজার অনুসন্ধাকারী, শরীয়তপুর।

৪৭।    জনাব এস. এম ফিরোজুল আহ্সান, জেলা ক্রীড়া অফিসার, শরীয়তপুর।

৪৮।    জনাব সঞ্জীব চক্রবর্ত্তী, জেলা প্রতিবন্ধী বিষয়ক কর্মকর্তা, শরীয়তপুর।

 

 

 

 


পরিশিষ্ট ‘‘খ’’ঃ সভায় অনুপস্থিত সদস্যগণের নামের তালিকাঃ

 

০১।    প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা, জেলা পরিষদ, শরীয়তপুর।

০২।    চেয়ারম্যান, ভেদরগঞ্জ উপজেলা পরিষদ, শরীয়তপুর।

০৩।    চেয়ারম্যান, জাজিরা উপজেলা পরিষদ, শরীয়তপুর।

০৪।    উপজেলা নির্বাহী অফিসার, ভেদরগঞ্জ, শরীয়তপুর।

০৫।    উপজেলা নির্বাহী অফিসার, জাজিরা, শরীয়তপুর।

০৬।    নির্বাহী প্রকৌশলী, এল জি ই ডি শরীয়তপুর।

০৭।    নির্বাহী প্রকৌশলী, বাপাউবো, শরীয়তপুর।

০৮।    অধ্যক্ষ, শরীয়তপুর সরকারি কলেজ, শরীয়তপুর।

০৯।    মেয়র, নড়িয়া পৌরসভা, শরীয়তপুর।

১০।    মেয়র, ডামুড্যা পৌরসভা, শরীয়তপুর।

১১।    মেয়র, ভেদরগঞ্জ পৌরসভা, শরীয়তপুর।

১২।    মেয়র, জাজিরা পৌরসভা, শরীয়তপুর।

১৩।    জেলা কমান্ড্যান্ট, আনসার ও ভিডিপি, শরীয়তপুর।

১৪।    উপ-সহকারী পরিচালক, ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স, শরীয়তপুর।

১৫।    সহকারী পরিচালক, জেলা উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা ব্যুরো, শরীয়তপুর।

১৬।    জেলা শিক্ষাঅফিসার, শরীয়তপুর।

১৭।    উপ-পরিচালক, পরিবেশ অধিদপ্তর, বৃহত্তর ফরিদপুর।

১৮।    জেলা রেজিষ্ট্রার, শরীয়তপুর।

১৯।    আঞ্চলিক ব্যবস্থাপক, বিকেবি, শরীয়তপুর।

২০।    ব্যবস্থাপক, কর্মসংস্থান ব্যাংক, শরীয়তপুর।

২১।    নির্বাহী পরিচালক, এসডিএস, শরীয়তপুর।

২২।    নির্বাহী প্রকৌশলী, পলস্নী বিদ্যুতায়ন বোর্ড, শরীয়তপুর।

২৩।   চেয়ারম্যান, জাতীয় মহিলা সংস্থা, জেলা শাখা, শরীয়তপুর।

২৪।    সহকারী পরিচালক, পাসপোর্ট অফিস, শরীয়তপুর।

২৫।    সহকারী আঞ্চলিক পরিচালক, বাউবি, শরীয়তপুর।

২৬।    পোষ্ট মাষ্টার, প্রধান ডাকঘর, শরীয়তপুর।

২৭।    কমান্ডার, বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, শরীয়তপুর জেলা ইউনিট।

২৮।    জেলা ত্রাণ ও পূর্ণবাসন কর্মকর্তা, শরীয়তপুর।

২৯।    ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা, বন বিভাগ, শরীয়তপুর।

৩০।    সহকারী প্রকৌশলী, স্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর, শরীয়তপুর।

 

এ জেলার চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ, শরীয়তপুর সদর/ডামুড্যা/নড়িয়া/গোসাইরহাট এবং শরীয়তপুর সদর/নড়িয়া/ভেদরগঞ্জ/ গোসাইরহাট -উপজেলা নির্বাহী অফিসারগণ এবং  প্রশাসক-গোসাইরহাট পৌরসভা, উপ-পরিচালক-জেলা পরিসংখ্যান অফিস, প্রধান শিক্ষক-পালং তুলসার গুরম্নদাস সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়, শরীয়তপুর সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় এবং ডিস্ট্রিক ফ্যাসিলিটেটর, এলজিএসপি-২ এর প্রতিনিধি প্রমূখ সভায় উপস্থিত থেকে নিজ নিজ দপ্তরের কার্যক্রমসহ বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন।